ম্যাচ হেরে ব্যাটিংয়ের ওপর দায় চাপালেন মুমিনুল

বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেটে ইতিহাসের হাতছানি ছিল আজ (সোমবার)। ডারবানের কিংসমিডে পঞ্চম দিনে মুমিনুল হকদের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ২৬৩ রান। কিন্তু পঞ্চম দিনে কেশভ মহারাজের বোলিং তোপে মাত্র ৫৫ মিনিটেই অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে ১৯ ওভারে ৫৩ রানে গুটিয়ে যায় টাইগাররা।

সফরকারীদের ২২০ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল প্রোটিয়ারা। দ্বিতীয় ইনিংসে যে ১৯ ওভারে অলআউট হয়েছে বাংলাদেশ সবগুলো ওভারই করেছেন প্রোটিয়া দুই স্পিনার মহারাজ ও হারামার। মহারাজ ৭ টি ও হারামার ৩ টি উইকেট নিয়ে সফরকারীদের ব্যাটিং লাইনআপ ধসিয়ে দিয়েছেন।

ম্যাচ হেরে তাই ব্যাটিংয়ের ওপর দায় চাপালেন টাইগার দলপতি মুমিলুন হক। সেইসাথে ডারবানে দলীয় সর্বনিম্ন রানে অলআউটের রেকর্ড গড়ার পরও দ্বিতীয় ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোর আশার কথা জানালেন তিনি।

ম্যাচশেষে মুমিনুল বলেন, ‘আমরা বলের মেরিট অনুসারে খেলার চেষ্টা করেছিলাম। আমরা চেয়েছিলাম শেষ সেশন পর্যন্ত খেলতে। দূর্ভাগ্যবশত, গতকাল বিকেলেই আমরা তিন উইকেট হারিয়েছিলাম যেটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। আমরা স্পিন খেলতে অভ্যস্ত। আমরা এটাও জানি ডারবানে তৃতীয়-চতুর্থ দিন থেকেই স্পিন হওয়া শুরু করে। আমরা ব্যাট হাতে ভালো করতে পারিনি।’

ব্যাট হাতে অন্যদের সঙ্গে ব্যর্থ ছিলেন মুমিনুল নিজেও। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসের দলের প্রয়োজনের সময় মাত্র ২ রানেই ফিরে গেছেন সহজ বলে। তবে পোর্ট এলিজাবেথে ঘুরে দাঁড়ানোর কথা বললেন, ‘ আমাদের হাতে একটি ম্যাচ আছে। আমাদের শক্তভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। আমরা সুযোগগুলো কাজে লাগাতে চেষ্টা করব। নতুনদের জন্য নিজেদের প্রতিভা দেখানোর ভালো সুযোগ হবে এটি।’

আগামী ৮ এপ্রিল সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকা-বাংলাদেশ।