ডমিঙ্গোর পরিকল্পনায় জাতীয় দলের সঙ্গে কাজ করবেন সিডন্স

জেমি সিডন্স বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ব্যাটিং পরামর্শক হয়ে এসেছেন। তবে কোথায় তাকে ব্যবহার করবে বিসিবি, সেটি নিয়ে এখনো ধোঁয়াশা কাটেনি। আজ (সোমবার) বোর্ডের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু ইঙ্গিত দিয়েছেন, জাতীয় দলের সঙ্গেই কাজ করবেন সিডন্স। আসন্ন আফগানিস্তান সিরিজের আগে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ছুটি কাটিয়ে বাংলাদেশে ফিরলে সিডন্সকে নিয়ে পরিকল্পনা সাজাবেন।

সিলেটে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ দেখতে গিয়ে সেখানে সংবাদমাধ্যমকে নান্নু বলেন, ‘বিপিএলের পর পরই (কাজ শুরু করবে)। যখনই আমাদের ট্রেনিং সেশন শুরু হবে, ডমিঙ্গো আসবে। পরিকল্পনা তো ডমিঙ্গোই করবে হেড কোচ হিসেবে। ওই পরিকল্পনায় কাজ শুরু করবে।’

সঙ্গে যোগ করেন নান্নু, ‘জাতীয় দলের সঙ্গেই তো ব্যাটিং কোচ হিসেবে যোগ দেওয়ার কথা আমি যতটুক জানি। ইনশাআল্লাহ্‌ আশা করছি এই সিরিজ থেকে কাজ করবে।’

জেমি সিডন্স ২০০৭ সালের অক্টোবরে বাংলাদেশ জাতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ২০১১ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর তিনি পদত্যাগ করেন। সিডন্সের অধীনে বাংলাদেশ দল ১৯ টেস্টের মধ্যে ২টি জিতেছে, হেরেছে ১৬টি। এক দশকের বেশি সময় পর আবার বিসিবির দায়িত্ব নিয়ে এসেছেন সিমন্স।

তার সময়কার অনেক ক্রিকেটারই এখন খেলার মধ্যে নেই। সেই জায়গাগুলো দখল করেছেন নতুন খেলোয়াড়রা। এজন্য জাতীয় দল এবং আশেপাশে থাকা ক্রিকেটারদের পরিচয় করাতে সিডন্সকে একটি গাইডলাইন দিয়েছে বিসিবি। কাজে তাদের নিয়ে অনুশীলন করতে সহজ হয়।

নান্নুর ব্যাখ্যা, ‘ওকে আমরা একটা গাইডলাইন দিয়েছি। যেটা আমাদের তিন ফরম্যাটে তিনটা টিম। তো কে কে খেলে অনেক খেলোয়াড়কে তো ও চিনে না। তো সে হিসেবে গাইডলাইন দেওয়া হচ্ছে যে কে কোন ফরম্যাটে খেলে কোথায় ব্যাটিং করে। আমাদের বোলাররা কেমন। সবকিছু নিয়ে ওকে শুধু একটা গাইডলাইন দেওয়া হয়েছে যাতে যখন অনুশীলনে নামবে খুব সহজে সবার সম্পর্কে জেনে কাজটা করতে সুবিধা হয়।’