ইমন-জয়ই বাংলাদেশ দলের ভবিষ্যৎ

স্টিভ রোডস যখন চাকরি হারিয়ে বাংলাদেশ ছেড়ে যান, তখন বাংলাদেশ ক্রিকেটে অপরিচিত মাহমুদুল হাসান জয় আর পারভেজ হোসেন ইমন। ২০১৯ সালে রোডস চলে যাওয়ার এক বছর পর, অর্থাৎ ২০২০ সালে বাংলাদেশকে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জিতিয়ে তারকা খ্যাতি পান এ দুই ক্রিকেটার। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের হয়ে খেলছেন জয় আর ইমন, এই দুই তরুণে মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ দেখছেন দলটির উপদেষ্টা রোডস।

আজ (রোববার) মিরপুরে সংবাদমাধ্যমের এক প্রশ্নের জবাবে রোডস বলেন, ‘জয়ের কথা আলাদা করে বলতেই হবে। যেভাবে নিজের স্ট্রাইক রেট সে উঁচুতে রাখতে পেরেছে, আমার মনে হয় অনেককেই সে চমকে দিয়েছে। সে যেভাবে খেলেছে, প্রমাণ করেছে যে বড় মঞ্চে সে ভীত নয়। নিউজিল্যান্ডে টেস্ট ম্যাচে সে ভালো করেছে, এবার বিপিএলেও।’

যোগ করেন রোডস, ‘আমার মনে হয় বড় মঞ্চ সে পছন্দ করে। স্থানীয় তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে সে নিজেকে আলাদা ভাবেই তুলে ধরেছে। বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে আমি খুব আগ্রহ নিয়ে তাকিয়ে থাকি। জয়ের মতো একজনকে উঠে আসতে দেখাটা তাই তৃপ্তির।’

জয় এবার বিপিএলে ব্যাট হাতে বেশ সাবলীল। ইনিংস শুরু করতে নেমে আগ্রাসী ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে তাকে। ৭ ইনিংসে প্রায় ৩০ গড়ে করেছেন ২০৭ রান। ইমনের অবস্থান উল্টো। একাদশে সুযোগ হচ্ছে না তার। কুমিল্লা এরই মধ্যে ১০ ম্যাচ খেলে ফেলেছে, অথচ শেষ ম্যাচ ছাড়া একাদশে জায়গা হয়নি ইমনের। সে ম্যাচেও মাত্র ৭ রান করে আউট হন এই তরুণ। তবে ইমনের মধ্যে ভবিষ্যৎ দেখছেন রোডস।

রোডসের ব্যাখ্যা, ‘আমার মনে হয় ইমন খুব ভালো ক্রিকেটার। আমাদের দলে তিনজন বিদেশি অলরাউনাডার আছে, যারা নিয়মিত খেলছে। তাদের সঙ্গে লিটন, জয় খেলছে। ইমনকে তাই একাদশে রাখা কঠিন। তবে অনেক সময় এখনও তার আছে। ভবিষ্যতের জন্য সে ভালো একজন।’