সাতকানিয়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, গুলি

সপ্তম ধাপে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সোমবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

ভোট শুরুর কিছু সময় পরেই খাগরিয়া ইউনিয়নের গণিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় কেন্দ্রে ককটেল বিস্ফোরণ ও গুলির শব্দ শোনা গেছে। কেন্দ্র দখল নিয়ে প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

জানা গেছে, নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী আক্তার হোসেন ও মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী জসিম উদ্দীনের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেছেন খাগরিয়া ইউনিয়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও বাঁশখালী উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ওমর ফারুক।

ঘটনাস্থল থেকে তিনি বলেন, খাগরিয়া গণিপাড়া কেন্দ্রটিতে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। ঘটনাস্থলে এসে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আনে। তবে কেন্দ্রটির ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়নি।

গুলি বিনিময় ও ককটেল বিস্ফোরণের কোনো ঘটনা আছে কিনা এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা আসার আগে কেন্দ্রের বাইরে কেউ করলে করতে পারে। এখন কোনো সমস্যা নেই।

এছাড়া চট্টগ্রামের সোনাকানিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে মোটরসাইকেল প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সেলিম উদ্দিনের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সেলিম উদ্দিন বলেন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের ভেট কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জসিম উদ্দিনের লোকজন আমার ওপর হামলা করেছে। এছাড়া সোনাকানিয়া ইউনিয়নের ৬, ৭, ৮ ও ৯ নম্বর কেন্দ্র থেকে নিজের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ তার।

এছাড়া বাজালিয়া ইউনিয়নের বড়দুয়ারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় এই কেন্দ্রে কিছুক্ষণের জন্য ভোট বন্ধ ছিল। এ কেন্দ্রে তিনজন সামান্য আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু তালেব মন্ডল বলেন, দুই-তিনটি কেন্দ্রে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময়ে খাগরিয়া ইউনিয়নে একটি কেন্দ্রে কিছুক্ষণের জন্য ভোটগ্রহণ বন্ধ ছিল। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সাতকানিয়ার কোনো কেন্দ্রের ভোট এখনও স্থগিত করা হয়নি।

উল্লেখ, চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ১৬টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরমধ্যে ৪ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এসব ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হচ্ছে না। তবে ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ চার ইউনিয়ন ছাড়া বাকি ১২টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদ, ইউপি সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।