বৈদেশিক ডাকের চালানে পিস্তল আসার ঘটনায় মামলা

ইতালি থেকে বৈদেশিক ডাকে আসা একটি চালান থেকে দুটি এইটএমএম পিস্তল ও ৬০টি কার্তুজ উদ্ধার করার ঘটনায় দুই জনকে আসামি করে মামলা করেছে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রাম নগরীর বন্দর থানায় মামলাটি দায়ের করেন চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহেদুল কবির। তিনি বলেন, ডাকের চালানে পিস্তল আসার ঘটনায় মজুমদার কামরুল হাসান ও রাজীব বড়ুয়া নামের দুই জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনায় এখনও কাউকে আটক করা যায়নি।

উল্লেখ, রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) ইতালি থেকে বৈদেশিক ডাকে আসা একটি চালান থেকে দুটি এইটএমএম পিস্তল ও ৬০টি কার্তুজ উদ্ধার করে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ।

কাস্টমস কর্মকর্তারা গৃহস্থালি পণ্যের নামে আসা একটি কার্টন খুলে অস্ত্র দুটি জব্দ করেন।

কাস্টমস কমিশনার মোহাম্মদ ফখরুল আলম বলেন, ইতালি থেকে একটি পার্সেল এসেছে। পার্সেল আসা কার্টনে গৃহস্থালি পণ্য, ক্রোকারিজ মালামাল থাকার ঘোষণা ছিল। পার্সেল খুলে ফ্রাইপেন, ব্লেন্ডার ও রান্নার কাজে ব্যবহৃত ছুরির সঙ্গে চারটি পিস্তল পাওয়া যায়। এর মধ্যে দুটি হচ্ছে আসল পিস্তল। আর দুটি খেলনা পিস্তল। যা দেখতে একই রকম।

কাস্টমস কমিশনার আরও বলেন, চালানটি চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ সিজিএস কলোনির এফ সেভেন এ এইট ঠিকানার কামরুল হাসান নামের এক ব্যক্তির নামে পাঠানো হয়েছে।

কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চালানটি খুলে এই অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। ইতালি থেকে রাজীব বড়ুয়া নামের এক ব্যক্তি চালানটি পাঠিয়েছেন।