দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় কমেছে নিরক্ষরতার হার

গত ছয় বছরে দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় নিরক্ষরতার হার কমেছে প্রায় ১৪ দশমিক ৫০ শতাংশ। তবে এখনো দেশের দুর্যোগপ্রবণ এলাকার ২৩ দশমিক ৫০ শতাংশ মানুষের কোনো অক্ষর জ্ঞান নেই।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ‘বাংলাদেশ পরিবেশ পরিসংখ্যান-২০২০’ বিষয়ক প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

দেশের ৬৪ জেলার দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় ৭৫ লাখ ১৫ হাজার ৯৭৭টি খানার ওপর এই জরিপ করা হয়েছে। এসব খানার আওতায় ৩ কোটি ৪১ লাখ ১২ হাজার ৯১০ জন মানুষের ওপর জরিপ চালানো হয়েছে। অন্যদিকে, ২০১৫ সালে জরিপে ৬৪ জেলার দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় ৪৩ লাখ ৬১ হাজার ২৬১টি খানা ছিল। ওই সময় এই জরিপের আওতায় ২ কোটি ২০ লাখ ৪ হাজার ৩৬৭ জনসংখ্যা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল।

পরিবেশ, জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগ পরিসংখ্যান শক্তিশালীকরণ (ইসিডিএস) প্রকল্প পরিচালক মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় খানার সদস্যদের শিক্ষাগত যোগ্যতাকে বিভিন্ন শ্রেণিতে ভাগ করা হয়েছে। এসব এলাকায় প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পাস ৩৪ দশমিক ১৮, ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণি পাস ২৩ দশমিক ৬৭, এসএসসি/এইচএসসি সমমানের পাস ১৪ দশমিক ৪৮ ও স্নাতক/স্নাতকোত্তর পাস করা মানুষের সংখ্যা ৩ দশমিক ২৬ শতাংশ। আর কোনো ধরনের শিক্ষাই গ্রহণ করেনি এমন মানুষের সংখ্যা ২৩ দশমিক ৫০ শতাংশ।

প্রকল্প পরিচালক বলেন, ২০১৫ সালের জরিপে দুর্যোগপ্রবণ এলাকার খানার সদস্যদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ১ম শ্রেণি থেকে ৫ম শ্রেণি পাস ছিল ৩৩ শতাংশ, ৬ষ্ঠ থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত পাস ছিল ১৯ শতাংশ, এসএসসি/এইচএসসি সমমানের পাস ছিল ৯ শতাংশ, স্নাতক/স্নাতকোত্তর পাস মাত্র ছিলে এক শতাংশ এবং কোনো ধরনের শিক্ষাই গ্রহণ করেনি এদের সংখ্যা ছিল ৩৮ শতাংশ।

জরিপে বলা হয়েছে, দুর্যোগপ্রবণ এলাকায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে গত ছয় বছরে শিশুদের (০০-১৭) স্কুলে অনুপস্থিতির প্রধান কারণ ছিল অসুস্থতা ও আহত- ৭২ দশমিক ৩৯ শতাংশ। এছাড়া যোগাযোগ ব্যবস্থার অবনতির কারণে ২০ দশমিক ৪২ শতাংশ ও বিদ্যালয়ের অবকাঠামে ক্ষতিগ্রস্ত/ধ্বংসপ্রাপ্তের কারণে দুই দশমিক ৮৩ শতাংশ শিশু স্কুলে যেতে পারেনি।

অন্যদিকে ২০০৯-২০১৪ পর্যন্ত সময়ে স্কুলে অনুপস্থিতির প্রধান কারণ ছিল যোগাযোগ ব্যবস্থার অবনতি ৭৩ শতাংশ।

জরিপে উঠে এসেছে, বর্তমান সময়ে জলবায়ু পরিবর্তন আলোচিত একটি বিষয়। গ্রিন হাউজ গ্যাস নিঃসরণ ও ভূ-পৃষ্ঠের উষ্ণতা বৃদ্ধির প্রভাবে জলবায়ু পরিবর্তন হচ্ছে। ভৌগোলিক অবস্থান ও জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে প্রাকৃতিক দুর্যোগ এদেশে একটি নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। সামগ্রিক জনজীবনে ব্যাপক প্রভাব ফেলছে প্রাকৃতিক দুর্যোগ।