ঢাকাসহ ৫ জেলায় সড়কে ঝরল ১১ প্রাণ

দেশে পাঁচ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার ভোর থেকে বিভিন্ন সময় তাদের মৃত্যু হয়। এর মধ্যে নরসিংদীতে সর্বোচ্চ চারজনের মৃত্যু হয়েছে। জেলার রায়পুরায় পিকআপের সঙ্গে অটোরিকশার সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ঢাকায় বালুবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে কোকাকোলা কোম্পানির ট্রাকের সংঘর্ষে দুইজন, দিনাজপুরে দুইজন, কুষ্টিয়ায় পৃথক দুটি দুর্ঘটনায় দুইজন এবং নাটোরে একজনের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা মেইলের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

নরসিংদী: জেলার রায়পুরা উপজেলায় পিকআপের সঙ্গে অটোরিকশার সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও একজন। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রায়পুরা উপজেলার আমীরগঞ্জে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

রায়পুরা থানার ডিউটি অফিসার পিংকি আক্তার জানান, দুর্ঘটনায় চারজন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রায়পুরা থেকে পাঁচজন যাত্রী নিয়ে নরসিংদী শহরের দিকে যাচ্ছিল একটি অটোরিকশাটি। আমীরগঞ্জের করিমগঞ্জ এলাকায় অটোটি পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশাটি দুমড়েমুচড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই চার যাত্রী নিহত হয়। আহত এক নারী যাত্রীকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।

খবর পেয়ে আমীরগঞ্জ ফাঁড়ি পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দুটি জব্দ করে এবং মরদেহগুলি উদ্ধার করে সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

ঢাকা: ভোরে রাজধানীর রূপনগর থানার বেড়িবাঁধ এলাকায় বালু বোঝাই ট্রাক ও কোকাকোলা কোম্পানির ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে বাদল (৪৫) ও রফিক (২২) নামে দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ফয়সাল (১৯) ও সেলিম (২৬) নামে আরও দুইজন।

তাদের উদ্ধার করে নিয়ে আসা পথচারী জিলানী বলেন, রূপনগর বেড়িবাঁধ এলাকায় বালুবোঝাই ট্রাক ও কোকাকোলা কোম্পানির ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে বালুবোঝাই ট্রাকের চালক ও শ্রমিক মারা যায়। এ ঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন। তাদের ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা চলছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক হাসপাতালে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া বলেন, মরদেহ দুটি হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মর্গে পাঠানো হয়। আহত দুজনের ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসা চলছে।

দিনাজপুর: ভোরে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের ফকিরপাড়া এলাকায় ইট ও আলুবোঝাই দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে ইটবোঝাই একটি ট্রাকের চালক ও তার সহকারী নিহত হয়েছেন।

জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের ফকিরপাড়ার এই দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন আলু বোঝাই ট্রাকের চালক ও তার সহকারী।

নিহতরা হলেন- ট্রাকচালক বগুড়া জেলার নন্দীগ্রামের সরোয়ার হোসেন (৪৫) এবং তার সহকারী হেলপার নওগাঁ জেলার সিংড়া থানার জয়নগর গ্রামের সাইফুল ইসলাম (৪৮)। আহতদের মধ্যে আলু বোঝাই ট্রাকের চালক সাইদুল ইসলামের (৪০) নামপরিচয় জানা গেছে। তার বাড়ি নওগাঁর মহাদেবপুর গ্রামে। আহত অন্যজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

দিনাজপুর

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফুলবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশ্রাফুজ্জামান জানান, রাতে পাবনা থেকে ইট নিয়ে একটি ট্রাক পঞ্চগড়ে যাচ্ছিল। ভোরে ফকিরপাড়া এলাকায় বিপরীত দিক থেকে নওগাঁগামী আলু বোঝাই একটি ট্রাক আসছিল। এসময় ইট বোঝাই ট্রাকটি নিজের লেন থেকে বিপরীত দিকের লেনে চলে গেলে দুই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ইটবোঝাই ট্রাকের চালক ও হেলপার নিহত হন। আহত হন অপর ট্রাকের চালক ও তার সহকারী।

নিহতদের মরদেহ দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

কুষ্টিয়া: জেলায় পৃথক দুটি দুর্ঘটনায় দুইজন নিহত হয়েছেন। ভোর পাঁচটার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বৃত্তিপাড়া এলাকায় কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কে একটি মালবোঝাই ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে শফিউর (২৫) নামের একজন নিহত হয়েছেন। তিনি ট্রাকটির চালকের সহকারী ছিলেন। যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শাজাহান আলীর ছেলে তিনি। আহত হয়েছেন ট্রাকের চালক আনোয়ার।

কুষ্টিয়া হাইওয়ে থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মতিউর রহমান জানান, ঝিনাইদহ থেকে মালবোঝাই একটি ট্রাক কুষ্টিয়ার দিকে আসার পথে ভোরে বৃত্তিপাড়া বাজারে কাছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে গাছে ধাক্কা লাগে। এসময় গাড়ির সামনের দিকে অংশ ভেঙে গাছের মধ্যে ঢুকে যায়। ঘটনাস্থলেই ট্রাকটির হেলপার শফিউরের মুত্যু হয়।

কুষ্টিয়া

অন্যদিকে বিকালে জেলার খোকসা উপজেলার কাদিরপুর মাঠ থেকে মাটি নিয়ে আসার সময় ট্রলি উল্টে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তার নাম আলিফ (২৪)। তিনি ওই ট্রলির চালক ছিলেন।

আলিফ উপজেলার বেতবাড়িয়া ইউনিয়নের মোকসেদপুর গ্রামের রেজাউল হকের ছেলে। খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ মো. আশিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নাটোর: সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গুরুদাসপুর উপজেলার খোয়ারপাড়া এলাকায় ট্রাক্টরের ধাক্কায় প্রাণ হারিয়েছেন শাকিল আহমেদ নামে ২৪ বছর বয়সী এক যুবক।

জানা যায়, সকালে বাড়ি থেকে ইটভাটায় কাজে যান শাকিল। খোয়ারপাড়া দশরতের ইটভাটায় মাটিবাহী ট্রাক্টর থেকে মাটি নামানোর সময় চালক অসাবধানতাশত পেছন থেকে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই শাকিলের মৃত্যু হয়। খবর শুনে ভাটার মালিক জাহিদ স্ট্রোক করেন। পরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

নাটোর

গুরুদাসপুর থানার ওসি আব্দুল মতিন বলেন, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত ছাড়াই পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। পুলিশ ট্রাক্টরটি আটক করে থানায় এনেছে। ঘটনার পর চালক পলাতক রয়েছে।