করোনায় একদিনে আরও ৩ মৃত্যু, শনাক্ত ২৩৩

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে একদিনে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের নিয়ে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৯ হাজার ১১১ জনে।

একই সময়ে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে আরও ২৩৩ জনের শরীরে। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৪৯ হাজার ৪৮৬ জনে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ১ দশমিক ৮৮ শতাংশ।

রোববার (১৩ মার্চ) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনা পরিস্থিতি সংক্রান্ত নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৮৭৮টি করোনা পরীক্ষাগারে ১২ হাজার ৩৪৮টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে আগের কিছুসহ মোট ১২ হাজার ৩৬৬টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষা সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক কোটি ৩৬ লাখ ৩৭ হাজার ৭৩৭টি। পরীক্ষায় আরও ২৩৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফলে দেশে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯ লাখ ৪৯ হাজার ৪৮৬ জনে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, একদিনে মৃত তিনজনের মধ্যে পুরুষ একজন ও নারী দুইজন। তাদের মধ্যে দুইজন সরকারি এবং একজন বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

মোট মৃতের মধ্যে ১৮ হাজার ৫৮৭ জন পুরুষ (৬৩ দশমিক ৮৫ ভাগ) এবং ১০ হাজার ৫২৪ জন নারী (৩৬ দশমিক ১৫ ভাগ)।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন আরও এক হাজার ৪১৭ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থের সংখ্যা দাঁড়াল ১৮ লাখ ৬০ হাজার ৮৮৬ জনে।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১ দশমিক ৮৮ ভাগ। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৪ দশমিক ২৯ ভাগ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৫ দশমিক ৪৬ ভাগ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৯ ভাগ।

বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতদের মধ্যে বিশোর্ধ্ব একজন এবং ষাটোর্ধ্ব দুইজন। যাদের মধ্যে ঢাকার দুইজন এবং রাজশাহীর একজন রয়েছেন।

২০১৯ এর ডিসেম্বরে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস পৃথিবীজুড়ে মহামারীতে রূপ নেয়। বাংলাদেশে প্রথম করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয় ২০২০ সালের ৮ মার্চ। এরপর একই বছরের ১৮ মার্চ দেশে করোনায় প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।