আখের রস: ইফতারে এনার্জি ড্রিংক

গরমে রোজা রেখে কাহিল হয়ে পড়েন অনেকে। দীর্ঘসময় পানি পান না করায় দেখা দেয় পানিশূন্যতা। আর তাই, ইফতারে রাখা চাই এমন কিছু যা তৃষ্ণাও মেটাবে, শক্তিও জোগাবে। এমন একটি এনার্জি ড্রিংক হলো আখের রস।

শরীরের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান মেলায় আখের রস। এর কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা হলো-

কোষ্ঠকাঠিন্য কমায়

রোজায় অনেকেরই কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যা কমায় আখ। এতে রয়েছে প্রচুর ফাইবার। কোষ্ঠকাঠিন্য সমস্যা কমাতে প্রয়োজন ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার।

কিডনির সুরক্ষা বাড়ায়

সারাদিন পানি পান করা হয় না বলে রমজানে কিডনির ওপর প্রভাব পড়তে পারে। আখের রসে কোলেস্টেরলের মাত্রা কম থাকে। এতে সোডিয়াম ও অসম্পৃক্ত স্নেহ পদার্থও একদম কম পরিমাণে থাকে। তাই এই পানীয় কিডনিও ওপর চাপ কমায়। এর সুরক্ষা বাড়ায়।
ত্বক ও চুল ভালো রাখে

আখের রসে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম, আয়রনসহ বিভিন্ন খনিজ পদার্থ। এই উপাদানগুলো ত্বক ভালো রাখতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে৷ দেহের রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়। আখের রসে আরও আছে আলফা হাইড্রক্সি অ্যাসিড নামক উপাদান। এটি ব্রণের সমস্যা দূর করে। মাথার খুশকি কমাতেও সাহায্য করে এটি।

লিভারের সুরক্ষা বাড়ায়

আখের রসকে বলা হয় ডাইইউরেটিক। এটি দেহ থেকে বিভিন্ন বিষাক্ত পদার্থ দূরীকরণে সাহায্য করে। লিভারের সুরক্ষা বাড়ায়। জন্ডিসের রোগীকে এ জন্য বেশি আখের রস পান করানো হয়।

কিন্তু এই এনার্জি ড্রিংকের সম্পূর্ণ উপকার পেতে তা তৈরি করতে হবে স্বাস্থ্যকর উপায়ে। রাস্তার পাশের আখের রস তৈরি হয় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে। এতে দূষিত পানি ব্যবহার করার সম্ভাবনা থাকে। সেসঙ্গে রাস্তার ধুলাবালি তো আছেই। রমজানে বাসায় তৈরি করুন আখের শরবত।

উপকরণ:

আখ- কিউব করে কাটা (২ কাপ)
পানি- পরিমাণমতো
লেবুর রস- একটি লেবুর অর্ধেক
বরফ কিউব- পরিমাণমতো

প্রণালি:

আখের খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। ছোট ছোট কিউব আকারে কেটে ফেলুন। ব্লেন্ডারে আখ ও অল্প পানি দিন। আখ চিপড়ে রস বের করে পানি অন্য পাত্রে রাখুন। আবার অল্প পানি মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন। এভাবে ৩ বার করার পর উচ্ছিষ্ট আখ ফেলে দিন। গ্লাসে আখের রস ছেকে ঢালুন। সঙ্গে সামান্য লেবুর রস আর আইস কিউব মিশিয়ে পরিবেশন করুন।

আখের শরবতের সঙ্গে বাড়তি কোনো চিনি মেশানোর প্রয়োজন নেই।