ন্যায়বিচার চান জেলেনস্কি

ইউক্রেনের ক্রামতোর্স্ক ট্রেন স্টেশনে রাশিয়ার হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫২ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এর ন্যায়বিচার দাবি করেছেন তিনি।

শুক্রবার রাতে এক ভাষণে জেলেনস্কি এমন দাবি করেন। খবর আল জাজিরার

ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, দুনিয়ার সব নেতৃস্থানীয় দেশ ইতোমধ্যেই ক্রামতোর্স্কে রুশ হামলার নিন্দা জানিয়েছে। আমরা এই যুদ্ধাপরাধের জন্য একটি কঠিন বৈশ্বিক প্রতিক্রিয়া প্রত্যাশা করছি। এর জন্য দায়ী প্রত্যেককেই বিচারের আওতায় আনা হবে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ক্রামতোর্স্কের ট্রেন স্টেশনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন এবং একে ‘রাশিয়া কর্তৃক সংঘটিত আরেকটি যুদ্ধাপরাধ’ বলে অভিহিত করেছেন।

শুক্রবার ইউক্রেনের রাষ্ট্রীয় রেল কোম্পানি দাবি করে, ক্রামতোর্স্ক ট্রেন স্টেশন ব্যবহার করে বেসামরিক মানুষের সরে যাওয়ার চেষ্টার সময়ে রকেট হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এতে অন্তত ৫২ জন নিহত এবং আরও প্রায় একশ লোক আহত হয়েছেন।

দোনেস্ক অঞ্চলের গভর্নর পাভলো কাইরিলেনকো বলেছেন, রকেট হামলার সময় ট্রেন স্টেশনে হাজার হাজার মানুষ ছিল। তিনি বলেন, ‘রাশিস্টরা (রুশ ফ্যাসিস্ট) খুব ভালো করেই জানতো তারা কোথায় হামলা করছে। তারা ভীতি ছড়িয়ে দিতে চায়, বেসামরিকদের প্রাণহানি চায়।’

মস্কোর পক্ষ থেকে অবশ্য ট্রেন স্টেশনটিতে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। এই অভিযোগকে ‘উসকানি’ এবং ‘চরম অসত্য’ বলে দাবি করেছে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।