চমক দেখালেন বরিস, জেলেনস্কির সঙ্গে ঘুরলেন কিয়েভের রাস্তায়

রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ চলছে ইউক্রেনের। এই যুদ্ধ এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ। বিভিন্ন শহর থেকে রুশ সেনা সরলেও অনেক স্থানে এখনো চলছে হামলা। এমন অবস্থার মধ্যেই হঠাৎ কিয়েভ সফরে গিয়ে চমকে দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। শনিবার অনির্ধারিত সফরে গিয়ে ইউক্রেনের রাজধানীতে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে রাস্তায় ঘুরে বেড়ালেন তিনি।

কিয়েভে জেলেনস্কির সঙ্গে বৈঠকও করেন বরিস জনসন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ডাউনিং স্ট্রিটের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।

ডাউনিং স্ট্রিট জানায়, ইউক্রেনের জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রদর্শনের জন্য এই সফর করেন বরিস জনসন এই সফরে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ইউক্রেনকে আর্থিক ও সামরিক সহযোগিতা দেওয়ার নতুন প্যাকেজ নিয়ে আলোচনা করেছেন।

লন্ডনে ইউক্রেনীয় দূতাবাস অনলাইনে বৈঠকের একটি ছবি পোস্ট করেছে। ওই ছবির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, চমক।

এক ফেসবুক পোস্টে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ের উপ-প্রধান আন্দ্রিয়ে সিবিহা বলেন, ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা সমর্থনে যুক্তরাজ্যের নেতা। যুদ্ধবিরোধী জোটের নেতা। রাশিয়ান আগ্রাসনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার নেতা।

বরিস জনসন হলেন সর্বশেষ পশ্চিমা নেতা যিনি জেলেনস্কির আলোচনার জন্য ইউক্রেনে গেলেন। বরিস জনসনের ইউক্রেন সফর নিয়ে কোনো সরকারি ঘোষণা ছিল না।

এর আগে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডের লিয়ান ও পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান জোসেফ বোরেলও ইউক্রেন সফরে যান। তারা ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করেছেন।

ভন ডের লিয়ান বুকা শহরেও সফরে যান। এই শহরটিতে ব্যাপক হত্যাকাণ্ড ও নৃশংসতা চালানো হয়েছে। শনিবার অস্ট্রিয়ান চ্যান্সেলর কার্ল নেহামেরও ইউক্রেন সফরে গিয়েছেন।