ইউক্রেনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অব্যাহত রেখেছে রুশ সেনারা

ইউক্রেনে এখনও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অব্যাহত রেখেছে রুশ সেনাবাহিনী। রোববার (২৭ মার্চ) সন্ধ্যায় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা মিখাইল পোডোলিয়াক এ কথা বলেছেন।

টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে তিনি লুটস্ক, খারকিভ, জাইটোমির এবং রিভনে শহরের কথা উল্লেখ করেছেন।

মিখাইল পোডোলিয়াক বলেন, প্রতিদিন আরও বেশি করে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ছে রাশিয়ান সেনারা। মারিউপোল বোমার ‘কার্পেট’-এর নিচে ঢাকা পড়ে গেছে।

রাশিয়ান আগ্রাসনের চিত্র তুল ধরে জেলেনস্কির এ উপদেষ্টা বলেন, রাশিয়ার আর ভাষা, মানবতাবাদ, সভ্যতা নেই। শুধুমাত্র ক্ষেপণাস্ত্র, বোমা রয়েছে। এগুলো দিয়ে তারা ইউক্রেনকে পৃথিবীর থেকে নিশ্চিহ্ন করার প্রচেষ্টা করছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে ইউক্রেনের এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার হাজার আবাসিক ভবন ধ্বংস করেছে রাশিয়া। প্রাণহানি হয়েছে অনেক বেসামরিক মানুষের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়া ইউক্রেনে প্রায় ৪৫০০টি আবাসিক ভবন, ১০০টি কোম্পানি ভবন, ৪০০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ১৫০টি হাসপাতাল ধ্বংস করেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ইউক্রেনের ক্ষতির পরিমাণ কয়েক বিলিয়ন মার্কিন ডলারে পৌঁছেছে। এর পরিমাণ প্রতিদিন বাড়ছে।

এদিকে ইউক্রেন রাশিয়ার সঙ্গে শান্তি চুক্তি নিয়ে আলোচনা করতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

জেলেনস্কি বলেন, রাশিয়ার সাথে শান্তি চুক্তির অংশ হিসেবে, ইউক্রেন একটি নিরপেক্ষ অবস্থান গ্রহণের বিষয়ে আলোচনা করতে প্রস্তুত। তবে এটি তৃতীয় পক্ষ দ্বারা নিশ্চিত হতে হবে। দরকার হলে একটি গণভোটের ব্যবস্থা করতে হবে।