অনাস্থা ভোটের মুখে মন্ত্রিসভার বৈঠক ডাকলেন ইমরান

নিম্নকক্ষ অধিবেশনে অনাস্থা ভোটের মুখে থাকা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক ডেকেছেন। আজ শনিবার (৯ এপ্রিল) স্থানীয় সময় রাত ৯টায় এই বৈঠক ডাকেন ইমরান খান।

এদিকে পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে মুলতবির পর অধিবেশন আবার শুরু হয়েছে। সেখানে অনাস্থা ভোট হতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। দেশটির সংবাদ মাধ্যম ডেইলি জং অনলাইন এই খবর জানিয়েছে।

মন্ত্রিসভার বৈঠকে ইমরান খান গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে পারেন বলে জানিয়েছে সূত্র।

এর আগে সকালে শুরু হওয়া অধিবেশনটি তুমুল বিতর্কের মধ্যে দুপুর ১২টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়। এরপর প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টা পর পুনরায় অধিবেশনে বসেন দেশটির আইনপ্রণেতারা।

পাকিস্তানের বিরোধীদলীয় আইনপ্রণেতাদের অভিযোগ দীর্ঘ বক্তব্য দিয়ে অধিবেশন ঝুলিয়ে দিচ্ছেন ইমরান খানের দলের সাংসদরা। তাদের দাবি ইচ্ছাকৃত বিলম্বের মাধ্যমে অভিশংসন ঠেকাতে চাইছেন ইমরান খান।

আর ‘বিদেশি ষড়যন্ত্র’সহ একাধিক বিষয়ে সংসদে আলোচনার ঝড় তুলেছেন ইমরানের দল পিটিআইয়ের আইনপ্রণেতারা। এমতাবস্থায় অধিবেশন এগিয়ে নিতে স্পিকার আসাদ কায়সারের কক্ষে বৈঠকে মিলিত হন উভয় পক্ষের সাংসদরা।

গত ৮ মার্চ পাকিস্তান জাতীয় পরিষদে ইমরান খানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব জমা দেয় বিরোধী দলগুলো। কয়েক দফা স্থগিত শেষে ৩ এপ্রিল এ বিষয়ে ভোটাভুটি হওয়ার কথা ছিল। এরই মধ্যে গত ৭ এপ্রিল পাকিস্তানের সর্বোচ্চ আদালত অনাস্থা প্রস্তাব খারিজের সিদ্ধান্তকে অবৈধ হিসেবে রায় দেয়। সেই সঙ্গে ৯ এপ্রিল অনাস্থা ভোট আয়োজনের নির্দেশ দেয়।

৩৪২ সদস্যের পাক জাতীয় পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণে ইমরান খানের ১৭২ জনের সমর্থন প্রয়োজন। তার দল পিটিআইয়ের সদস্য সংখ্যা ১৫৫। এরই মধ্যে বিরোধী দলগুলোর নির্দিষ্ট সংখ্যক ভোট দেওয়ার প্রস্তুতির খবরও জানিয়েছিল ডন।