বাপ্পী লাহিড়ীর মৃত্যুতে রুনা লায়লা: কান্নাও যথেষ্ঠ নয়

ভারতীয় সঙ্গীতাকাশ থেকে একে একে ঝরে যাচ্ছে নক্ষত্রগুলো। গত ৬ ফেব্রুয়ারি চলে গেলেন সুরের সরস্বতী দেবী খ্যাত লতা মঙ্গেশকর। তার প্রয়াণের শোক সামলে না উঠতেই মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) না ফেরার দেশে পাড়ি জমান কিংবদন্তি সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। একইদিন রাতে চলে গেলেন আরেক নন্দিত সংগীতশিল্পী বাপ্পী লাহিড়ী।

মৃত্যুর এই মিছিল সহ্য করা যে কারোর জন্যই কঠিন। তবে তাদের সঙ্গে যাদের স্মৃতি মিশে আছে, তারা রীতিমতো স্তব্ধ, নির্বাক। সেই স্তব্ধতার মাঝেই শোকবার্তা দিলেন রুনা লায়লা। উপমহাদেশের কিংবদন্তি এই গায়িকার সঙ্গে সদ্য প্রয়াত তিন শিল্পীর চমৎকার সম্পর্ক ছিল।

সর্বশেষ বাপ্পী লাহিড়ীর মৃত্যুর খবর শুনে হতবাক হয়ে গেছেন রুনা লায়লা। ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, “অসামান্য প্রতিভাবান সুরকার ও গায়ক বাপ্পী লাহিড়ীর মৃত্যুর খবর শুনে মর্মাহত এবং দুঃখিত। তার সঙ্গে বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রের গান ও মিউজিক অ্যালবামে কাজ করার সৌভাগ্য হয়েছে আমার। যার মধ্যে একটি ছিল সুপার হিট অ্যালবাম ‘সুপারুনা’। আমরা বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় অসংখ্য কনসার্ট করেছি।”

বাপ্পী লাহিড়ীর সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের কথা জানিয়ে ‘এসবের উর্ধে তিনি একজন বন্ধু ছিলেন। হাস্যরসাত্মক, মজাদার ও প্রিয়। তাকে বিদায় জানানো খুব কঠিন, কেননা তার আরও অনেক কিছু জয় করা বাকি ছিল।’

রুনা লায়লা আরও লিখেছেন, ‘কয়েকদিনের ব্যবধানে লতা দিদি ও সন্ধ্যা দিদির পর এবার বাপ্পিজিকে চিরবিদায় জানাতে হলো। তাদের হারানোর শোক প্রকাশের ভাষা নেই আমার। কান্নাও যথেষ্ট নয়। আমি পুরোপুরি স্তব্ধ ও বিষাদগ্রস্ত।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার রাতে মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বাপ্পী লাহিড়ী। জানা গেছে, তিনি স্লিপ অ্যাপনিয়ার কারণে মারা গেছেন।