রামেক হাসপাতালে করোনার উপসর্গ নিয়ে ২ জনের মৃত্যু

প্রাণঘাতি করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে আরও দুজন মারা গেছেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা থেকে বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টার মধ্যে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তারা মারা যান।

মারা যাওয়া দুজনই পাবনা জেলার বাসিন্দা। করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে একজন হাসপাতালের আইসিইউ এবং ২৯/৩০ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি ছিলেন।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, করোনা সংক্রমণের উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে দুই নারী রোগী মারা গেছেন। এদের একজনের বয়স ৬১ বছরের ওপরে। অন্যজনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে।

এদিকে ১৪৬ শয্যার রামেক করোনা ইউনিটে বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টা পর্যন্ত ভর্তি ছিলেন ৩১ জন। এক দিন আগেও এই সংখ্যা ছিল ৩০ জন। করোনা নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১২ জন। করোনার উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১২ জন। করোনা ধরা পড়েনি ভর্তি ৭ জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন একজন। এই এক দিনে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯ জন।

বর্তমানে রাজশাহীর ১২ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪ জন, নওগাঁর ৭ জন, নাটোরের ৩ জন, পাবনার ৩ জন, চুয়াডাঙ্গার একজন এবং সিরাজগঞ্জের একজন রোগী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

এর আগে সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) রামেক হাসপাতাল ল্যাবে ৬০টি নমুনা পরীক্ষায় ২টিতে করোনা শনাক্ত হয়েছে। একই দিনে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ১৮৭টি নমুনা পরীক্ষায় ১২টিতে করোনা ধরা পড়েছে। রাজশাহীর ১১৩টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা ধরা পড়েছে ৬টিতে। জেলায় করোনা শনাক্তের হার ৪ দশমিক ৬২ শতাংশ। এছাড়া জয়পুরহাটের ৭৪টি নমুনা পরীক্ষায় ৬টিতে করোনা ধরা পড়েছে। এই জেলায় করোনা শনাক্তের হার ৮ দশমিক ১১ শতাংশ।