ময়মনসিংহ মেডিকেলে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে ৫৩তম ব্যাচের এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষকের বিচার চেয়ে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা। তবে অভিযুক্ত ওই শিক্ষক এ অভিযোগকে ভিত্তিহীন ও ষড়যন্ত্র বলে দাবি করেছেন।

বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল গেটের সামনে ঘণ্টাব্যাপী ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে প্রফেসর ডা. আবুল কালাম আজাদের অপসারণ ও বিচার চান শিক্ষার্থীরা।

এ সময় শিক্ষার্থীরা বলেন, শুধু এখন নয়, ওই শিক্ষক বারবার শিক্ষার্থীদের কু-প্রস্তাব দেন। বর্তমানে আমাদের বড় এক আপু প্রাণের ভয়ে কলেজ থেকে চলে গেছেন। তিনি আতঙ্কে আছেন। শিক্ষকরা আমাদের পিতার মতো। তারা যদি আমাদের সাথে এমন আচরণ করেন, তাহলে আমরা কোথায় যাব এবং কার কাছ থেকে আদর্শ শিক্ষা গ্রহণ করব। এরকম শিক্ষক আমরা চাই না। আমরা এর বিচার চাই। আর কেউ যেন শিক্ষার্থীদের সাথে এমন আচরণ না করতে পারে সে ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

তবে বিষয়টি অস্বীকার করে প্রফেসর ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। পরীক্ষায় কিছু শিক্ষার্থীকে নম্বর কম দেওয়ার কারণে তারা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে মানববন্ধন করেছে।

এ ব্যাপারে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ চিত্ত রঞ্জন দেবনাথ বলেন, আমি জরুরি কাজে বাইরে আছি। সেখান থেকে শিক্ষার্থীদের সাথে বসে আলোচনা করব এবং বিষয়টি খতিয়ে দেখব।