ভোলায় গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু, বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ভোলার চরফ্যাশনে গৃহবধূ শাশ্বতী রায় চৈতীর রহস্যজনক মৃত্যুর সুষ্ঠ তদন্ত ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যানারে বিক্ষোব সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (৯ মার্চ) বেলা ১২টায় চরফ্যাশন সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ইয়ুথ পাওয়ার ইন বাংলাদেশ, জলবায়ু ফোরাম, ভোলা জেলা নাগরিক ফোরাম দক্ষিণ, টিম চিলেকোঠা, তারুণ্যের কণ্ঠস্বর প্ল্যাটফর্মসহ বিভিন্ন শিক্ষক, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ ও সাংবাদিকদের উপস্থিতে এই বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়৷

এ সময় বক্তারা গৃহবধূ চৈতীর রহস্যজনক মৃত্যুর সঠিক তদন্ত, আসামিদের গ্রেফতাদর ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বলেন, এটা কোন স্বাভাবিক মৃত্যু নয়৷ প্রশাসনকে চৈতীর অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যুর প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করতে হবে৷

চৈতীর বাবা মাস্টার সুভাষ চন্দ্র বলেন, ‘ওরা আমার মেয়েকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছে৷ তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও প্রশাসনের নিকট মেয়ের রহস্যজনক মৃত্যুর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন৷’

গত শনিবার রাতে চরফ্যাশন পৌরসভা ৪নং ওয়ার্ড কলেজ পাড়া এলাকায় শশুর বাড়ীর নিজ কক্ষে গৃহবধূ শাশ্বতী রায় চৈতীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ৷ পরে চৈতীর বাবা বাদী হয়ে মেয়ের শশুর, শাশুড়ী ও জামাইয়ের বিরুদ্ধে চরফ্যাশন থানায় মামলা দায়ের করেন৷ মামলায় শশুর শমির মজুমদার ও স্বামী শাওন মজুমদার গ্রেফতার হলেও শাশুড়ী নিয়তি রানী এখনো পলাতক রয়েছেন৷