পিরোজপুরে ৭ নারী বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সংবর্ধনা

পিরোজপুরে ৭ নারী বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পিরোজপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের শহীদ আব্দুর রাজ্জাক সাইফ মিজান স্মৃতি সভাকক্ষে এই সম্মাননা প্রদান করা হয়।

মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান জেলার নারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে সম্মাননা স্মারক ও শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেন।

সম্মাননাপ্রাপ্ত নারী বীর মুক্তিযোদ্ধারা হলেন পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার তারামনি মিস্ত্রী, আলেয়া বেগম, রেনুকা চক্রবর্তী, মঠবাড়িয়া উপজেলার আয়শা পারভীন, সালেহা বেগম, রোকেয়া বেগম, রোজিনা আনসারি।

জীবনের শেষ সময়ে এসেও দেশের সবচেয়ে বড় সম্মাননা পেয়ে অনুভূতি প্রকাশ করে তারামনি মিস্ত্রি বলেন, এই শেষ বয়সে এসে দেশের পক্ষ থেকে যে সম্মাননা পেয়েছি, সেটি গর্বের। আমরা সেদিন পুরুষ মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে যুদ্ধ করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের এই সম্মান প্রদান করেছেন, যাতে আমরা তার প্রতি কৃতজ্ঞ।

নারী মুক্তিযোদ্ধা সালেহা বেগম বলেন, আমরা সেদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্বাধীন এক ভূখণ্ডের আশায় যুদ্ধে গিয়েছিলাম। ভাবতে পারনি ফিরে আসব। তবে ফিরে এসে স্বাধীন দেশে ভালোই আছি। এই বয়সে এভাবে সম্মাননা পেয়ে আমরা কৃতজ্ঞ।

মহিলাবিষয়ক অধিদফতরের উপপরিচালক মো. জাকির হোসেন বলেন, পিরোজপুরে ৭ নারী বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। নারীদের সম্মাননার জন্য এটি সরকারের প্রথম অনুষ্ঠান। নারী মুক্তিযোদ্ধারা সম্মাননা পেয়ে আনন্দিত। মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে আমরা তাদের এই সম্মাননা প্রদান করেছি।

এ সময় পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মো. জাহেদুর রহমান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মনিরা পারভীন, জেলা মহিলাবিষয়ক অধিদফতরের উপপরিচালক জাকির হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সমীর কুমার দাস বাচ্চু ও এম এ রব্বানী ফিরোজ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ হাকিম হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধাদের স্বজন ও সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।