নোয়াখালীর হাতিয়ায় ব্যবসায়ীর মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলার হাতিয়ার তমরদ্দি ইউনিয়নের জোড়খালি বাজারের ব্যবসায়ী নাহিদ হোসেন হৃদয়কে বিকাশ প্রতারণার মিথ্যা মামলা ও জলদস্যুদের সাথে সম্পৃক্ততরার অভিযোগে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ এবং মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে ব্যবসায়ীরা।

শনিবার (৫ মার্চ) সকালে জোড়খালি বাজারে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে তমরদ্দির প্রায় সহশ্রাধিক ব্যবসায়ী অংশগ্রহণ করেন।

আন্দোলনকারিরা জানান, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ভোলার মনপুরার মেঘনা থেকে ৫ জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় জলদস্যুরা। পরে অপহৃতদের পরিবারের কাছ থেকে মুক্তিপন দাবি করে একটি বিকাশ এজেন্ট নাম্বার দেয় দস্যুরা। তাদের দেওয়া ওই নাম্বারটি হাতিয়ার জোড়খালি বাজারের ব্যবসায়ী নাহিদ হোসেন হৃদয়ের ছিল। অপহৃতদের মুক্তির জন্য পরিবারের পক্ষ থেকে হৃদয়ের এজেন্ট নাম্বারে ৩০ হাজার টাকা পাঠানোর পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে ওই ঘটনায় ভুক্তভোগিদের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি মামলা দায়ের করলে গত ২ মার্চ পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিকাশ এজেন্ট নাহিদকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে প্রেরণ করে। গ্রেপ্তারকৃত নাহিদ জোড়খালী গ্রামের হাজী মোয়াজ্জম হোসেনের ছেলে।

ঘন্টাব্যাপী চলা এ মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, জোড়খালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন, বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো: হানিফ, সাধারন সম্পাদক তাওহিদুল ইসলাম, ইউপি সদস্য রাশেদ উদ্দিন, মসজিদের ইমাম মোজাম্মেল হোসেন ও সমাজ সেবক মেজবাহ উদ্দিন বাহার।

বক্তারা বলেন, কোরালিয়া গ্রামের একজন মুদি দোকানদার হৃদয় থেকে এজেন্ট নাম্বার নিয়ে বিকাশে ৩০ হাজার টাকা পাঠায়। এখানে হৃদয়ের অপরাধ কি, সে তো ব্যবসায়ী তার নাম্বারে অনেকেই টাকা পাঠাবে। তারা দ্রুত সময়ের মধ্যে নিরপরাধ হৃদয়কে মুক্তি দিয়ে অপরাধিদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।