নকল স্বর্ণের বার দেখিয়ে প্রতারণা, গ্রেফতার ২

ময়মনসিংহে নকল স্বর্ণের বার দেখিয়ে নারীদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-১৪। এ সময় একটি সিএনজি ও দুইটি নকল স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন- সদরের হরিরামপুর এলাকার মৃত জীবন চৌহানের ছেলে বাদল চৌহান (৪৭) ও নগরীর দিঘারকান্দা এলাকার মৃত গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মো. ফেরদৌস (৩০)।

মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে র‍্যাব-১৪ কার্যালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। এর আগে সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর শম্ভুগঞ্জ এতিমখানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

র‍্যাব-১৪’র সহকারী পুলিশ সুপার মো. বেলায়েত হোসেন জানান, ঘটনার দিন রোকসানা বেগম নামে এক নারী নগরীর কৃষ্টপুর বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়ি ফুলপুরে যেতে নগরীর পাটগুদাম ব্রিজ মোড়ে আসে। এ সময় এক সিএনজিচালক কোথায় যাবেন বলে জিজ্ঞাসা করেন। পরে ওই নারী ফুলপুর যাব বললে তাকে সিএনজিতে উঠতে বলেন।

এদিকে, ওই সিএনজি চালকের সঙ্গে প্রতারক চক্রের যোগসাজশ থাকা চারজন প্রতারক আগে থেকেই যাত্রী বেশে সিএনজিতে বসে ছিল। পরে ওই চার প্রতারক ও নারীকে নিয়ে ফুলপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় চালক। পথে যাত্রীবেশে বসে থাকা বাদল চৌহান দুটি নকল স্বর্ণের বার বের করে নিজেদের মাঝে বলাবলি করে দুটি স্বর্ণের বার সিএনজির সিটে পেয়েছি। বিষয়টি দেখে ওই নারী স্বর্ণের বার দুটি দেখতে চায়। পরে বাদল চৌহান দেখানো যাবে না বলে আবারও লুকিয়ে ফেলেন। কৌশলে ওই নারীর কাছ থেকে দুটি স্বর্ণের কানের দুল, একটি স্বর্ণের চেইন ও ৫ হাজার টাকা নিয়ে নকল স্বর্ণের বার দুটি দিয়ে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিতে চান।

তিনি আরও বলেন, পরে ওই নারী প্রতারণার বিষয়টি জানতে পেরে চিৎকার দেন। প্রতারকরা শম্ভুগঞ্জ এতিমখানা এলাকায় সিএনজি থামিয়ে পালাতে চাইলে ওই নারী দুই প্রতারককে ঝাপটে ধরে চিৎকার দিলে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে বাদল চৌহানসহ দুজনকে ধরে ফেলেন। অপর দুজন কানের দুল, স্বর্ণের চেইন ও টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। এ সময় পাশেই টহল ডিউটিতে থাকা র‍্যাব ১৪’র একটি দল এসে ওই দুই প্রতারককে গ্রেফতার করে।

মো. বেলায়েত হোসেন আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা স্বীকার করে যে দীর্ঘদিন যাবত তারা এভাবে প্রতারণা করে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।