দ্রব্যমূল্যের লাগাম কষতে যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার: হানিফ

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সরকার যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছে বলে দাবি করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ।

শুক্রবার (১৮ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডের নিজ বাসভবনে সমসাময়িক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, দ্রব্যমূল্য নিয়ে সরকার যথেষ্ট উদ্বিগ্ন আছে এবং সরকার যথেষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছে। মনিটরিং টিম দিয়ে ইতোমধ্যেই মার্কেট সুপারভাইজ করা হচ্ছে।

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ইতোমধ্যে যারা অসাধু চিন্তা-চেতনা নিয়ে নিত্যপণ্য মজুদের চেষ্টা করেছিল, এমন বেশকিছু ব্যক্তিকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ভোজ্য তেলসহ অনেক পণ্যসামগ্রী জব্দ করা হয়েছে। এতে দেখা যাচ্ছে, বাজার আস্তে আস্তে কিছুটা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে চলে আসছে। আমাদের বিশ্বাস বর্তমানে যে অস্থিতিশীল অবস্থা বাজারে দেখা যাচ্ছে, এটা থাকবে না, খুব দ্রুতই এটা নিরসন হয়ে যাবে।

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ হয়ে সরকার শুধু অস্ত্রের জোরে ক্ষমতায় টিকে আছে- বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি নেতারা আসলে দিশেহারা হয়ে গেছে। মানসিকভাবে এরা অনেকেই এখন ভারসাম্য হারিয়ে ফেলছে বলে মনে হয়।

এমপি হানিফ বলেন, বিএনপি নেতাদের কথাবার্তার অসংলগ্নতা দেখলে এটা বোঝা যায়। বিএনপি রাষ্ট্রক্ষমতায় থাকা অবস্থায় রাষ্ট্র পরিচালনায় তাদের যে সীমাহীন ব্যর্থতা ছিল এবং বিএনপি নেতাদের যে সীমাহীন দুর্নীতি ছিল, সেই দুর্নীতি-অপকর্মের ফলে আজ তারা জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

আরও পড়ুন: লক্ষ্মীপুরে টিসিবির পণ্য পাবে দেড় লাখ পরিবার

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, বিরোধী দলে থাকাবস্থায়ও বিএনপির যে সন্ত্রাস-নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড আর ধ্বংসাত্মক কার্যক্রম, এর কারণেও কিন্তু তারা মানুষ থেকে জনবিচ্ছিন্ন। এই বিচ্ছিন্নতার কারণে যে কোনো ইস্যু নিয়ে কোনো আন্দোলনে তারা সফলতা লাভ করছে না।

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, এখন বিএনপি নেতাদের মধ্যে একটা হতাশা ভর করছে। এই হতাশা থেকে তারা অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছে। এসব নিয়ে জনগণ খুব একটা তাদের কথাবার্তার গুরুত্বও দিচ্ছে না, তাদের কথাবার্তা আমলেও নিচ্ছে না।

মতবিনিময়কালে কুষ্টিয়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জজসহ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।