কিশোরী যাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণ, বাসচালকসহ গ্রেপ্তার ৩

নরসিংদীতে এক কিশোরী (১৬) যাত্রীকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগে বাসচালক ও তার দুই হেলপারকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (০১ মার্চ) বিকেলে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে গতকাল সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে পৌর এলাকার শালিধা এলাকায় ময়লার ভাগারের পাশে ওই কিশোরীকে মুখ বেঁধে পালাক্রমে ধর্ষণ করে তারা। এ ঘটনায় রাতে অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তাররা হলেন- মনোহরদী উপজেলার রাব্বি মিয়া (১৮), নরসিংদী সদরের দত্তপাড়া এলাকার মো. রাব্বি (২৪) এবং অপরজন পলাশের দক্ষিণ দেওড়া এলাকার জাহিদুল হক (২০)। নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরীর বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোমবার বিকেল ৫টার দিকে ওই কিশোরী নরসিংদী লঞ্চঘাটে যাওয়ার জন্য সাহেপ্রতাপ মোড় এলাকা থেকে রংধনু পরিবহন নামে একটি মিনিবাসে ওঠে। এ সময় পথে সব যাত্রী নেমে গেলে কৌশলে বাসচালক ও দুই হেলপার মেয়েটির মুখ বেঁধে বাসে করে নরসিংদী নতুন বাসস্ট্যান্ডের পাশে ময়লার ভাগারে নিয়ে যায়। সেখানে তিনজন পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে মুখ বাঁধা অবস্থায় ফেলে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় সন্ধ্যায় পুলিশ ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাতেই অভিযুক্ত তিনজনকে আটক করে। সকালে ওই কিশোরী বাদী হয়ে মামলা করার পর তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

নরসিংদী মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) হারুন অর রশিদ বলেন, বিকেলে আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ওই কিশোরী এখন থানায় আছে। তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।